“ওরাকল ও ডেভেলপার” ইঞ্জিনিয়ার [পর্ব-১৭] :: ওরাকল প্রজেক্ট কনসেপ্ট – ২ ( সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হতে আগ্রহিদের জন্য খুবই জরুরি এবং সবাই উপকৃত হবনে, Oracle tutorial A-Z)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

আসসালামু আলাইকুম।ওরাকল ও ডেভেলপার ইঞ্জিনিয়ার ফ্রি র্কোসে আপনাদের স্বাগতম জানাচ্ছি আমি মো.রহিম উদ্দনি সোহাগ ।সবাই আশা করি ভাল আছেন আমিও ভাল আছি আপনাদের দোয়ায় । আজ সর্বপ্রথম শুভেচ্ছা জানাচ্ছি টেকটিউনস ব্লগ সাইট কে এবং যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করে প্রযুক্তির নতুন নতুন তথ্য,বিনোদন, কম্পিউটারের কাজ ইত্যাদি আরো অনেক কিছু ব্লগের মাধ্যমে শিখাচ্ছে তাদের কে আন্তরিক শুভেচ্ছা আর পাঠকদের আপনারা যদি সার্পোট না দেন তাহলে সবাই এত দুর আসতে পারত না, চলুন আগাই সামনের দিকে

একটি বাস্তব গল্প শুনা যাক

ধরুন রহিম মিয়া এক জন কৃষক । তিনি অনেক বছর ধরে জমি চাষ করে আসছেন ।আস্তে আস্তে এক সময়  তিনি প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেলেন,পরিল্পনা করলেন তার পুরাতন নিজ বাড়ীটি ভেংগে একটি ৫তলা সুন্দর বিল্ডিং করবেন তখন তিনি  সিভির ইঞ্জিনিয়ার or (ডেভেলেপর গ্রুপ) সাথে কথা বলেন এবং তার কাছে নতুন বাড়ীর প্রস্থাব রাখেন  তখন সিভির ইঞ্জিনিয়ার or (ডেভেলেপর গ্রুপ)  তার প্রস্থাবনা অনুযায়ী আগাতে লাগলেন । তখন তার বর্তমান বাড়ীটি পর্যবেক্ষন করেন এবং তার নতুন পরিল্পনা বের করেন যে এই কাজটি কত সহজে,আকর্ষনিয় এবং দ্রুত রহিম মিয়ার কাছে হস্থান্তর করতে পারেন (সময়)।

কাজটি যেভাবে সর্ম্পুন করা হয়

প্রথমে তারা বাড়িটির সম্পর্কে আলোচনা করেন তারপর ,এটি কেমন হতে পারে তার র্পূবানুমান করে (1–আর্কিটেকচার ইঞ্জিনিয়ার ১টি ডিজাইন করেন *)এবং সেই ডিজাইন অনুসারে (2–সিভিল ইঞ্জিনিয়ার সাদা পেপারে নকশা ডিজাইন করেন *) তারপর সেই মোতাবেক বাড়ীর কাজ চলে ১তলা সর্ম্পুন করতে যত কষ্ট সেখানে (3–২,৩,৪,৫ তলা প্রথম তলার  উপর নির্মিত*)

আজ আমরা শিখব/জানবঃ

ওরাকল প্রজেক্ট ওভারভিউ

একটি কাষ্টমাইজ সফটওয়্যার হাতে পাওয়ার পর আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে আপনি কোন ধরণের কাজ পেয়েছেন,যেমন : একাউন্টিং সফটওয়্যার, স্টোর ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার,ইনভেন্টরি সফটওয়্যার,কলেজ সিস্টেম ইত্যাদি যে কোন  একটি কাজ আপনি পেয়েছেন। তখন আপনাদের যা করতে হবে আমার সামান্য কেীশল আপনাদের শিখিয়ে দিচ্ছি আশা করি একটু হলেও উপকারে আসবে ।যেকোন প্রজেক্ট খুব সুন্দর হয় systems development life cycle (SDLC),এর মাধ্যমে তা নিচে আলোচনা করা হল

প্রজেক্ট এর শুরু ধাপ

১। প্রজেক্ট সনাক্ত করণ

২। এ্যানালাইসিস

  • প্রজেক্ট এর সংগা
  • প্রজেক্ট এর গঠন
  • বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহন

৩। ডিজাইন

  • লজিকেল
  • ফিজিক্যাল

৪।ব্যবস্থা গ্রহন

  • কোডিং
  • ডকুমেনশন টেষ্টিং

৫।মেইটেন্যান্স

  • Troubleshooting

নিচে এর বিস্তারিত আলোচনা করা হল

১। প্রজেক্ট সনাক্ত করণ

একটি কাষ্টমাইজ সফটওয়্যার হাতে পাওয়ার পর আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে আপনি কোন ধরণের কাজ পেয়েছেন,যেমন : একাউন্টিং সফটওয়্যার, স্টোর ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার,ইনভেন্টরি সফটওয়্যার,কলেজ সিস্টেম ইত্যাদি যে কোন  একটি কাজ আপনি পেয়েছেন। আপনাকে প্রথমে সিস্টেম সম্পর্কে পর্যবেক্ষণ করতে হবে অথার্ৎ  মডিউল সর্ম্পকে জেনে নেওয়া আবশ্যক। কারণ আপনি যে সফটওয়্যারটি তৈরি করে দিতে চাচ্ছেন তা বর্তমান অবস্থান কেমন এবং এটিকে যদি আরো ডেভেলপকরা যায় তাহলে গ্রাহক সুযোগ সুবিধা কেমন পাবে তা নিয়ে আলোচনা করতে হবে । তার পর আপনি সিলেক্ট করবেন

২। এ্যানালাইসিস

এই পর্যায়ে আপনাকে যে কাজটি সিলেক্ট করেছেন তার সম্পর্কে গবেষনা করতে হবে মনে রাখবেন আপনি যত বেশি এ্যানালাইসিস করবেন তত বেশি আপনার জন্য কাজটা সহজ হবে

  •  প্রজেক্ট এর সংগা

প্রজেক্ট এর সংগা বলতে আপনি যে কাজটি পেয়েছেন তার সম্পর্কে কিছু আলোচনা করা যেমন : কাজটি বর্তমান অবস্থা কেমন আছে এবং যদি আমরা এই কাজটি করি তাহলে আগের থেকে নতুন কি উপকৃত হতে পারে ইত্যাদি (সংক্ষিপ সংগা)

  • প্রজেক্ট এর গঠন

কাষ্টমাইজ সফটওয়্যা্র আকৃতি কেমন হতে পারে এর জন্য তা পর্যবেক্ষন করা

  • বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহন

বিকল্প ব্যবস্থা হচ্ছে আপনি কাজটি যদি করেন এর বিকল্প কি হতে পারে তা নিয়ে চিন্তা করা আবার আপনি যদি কাজটি না করতে পারেন তাহলে কি করবেন তা মাথায় চিন্তা রাখতে হবে

৩। ডিজাইন

গল্পের আলোকে বাড়ী তৈরি মত আপনাকে প্রজেক্ট এর বিভিন্ন পূর্বানুমান করে বিভিন্ন ডিজাইন করতে হবে

  • লজিক্যাল

লজিক্যাল ডিজাইন হচ্ছে বিভিন্ন ধাপ অর্থাৎ কাজটি কেমন করে করবেন কোন কোথায় কি হবে (যেমন :বাড়ীর রুম সব গুলো একই থাকে কিন্তু যারা থাকে তার রুমটাকে বিভিন্ন ভাবে সাজায়) আর প্রোগ্রামিং এর লজিক হচ্ছে কোথায় কোথায় লিংক হবে কোথায় গিয়ে ডেটা জমা হবে, কিভাবে সহজে উপন্থাপন করা যায় ইত্যাদি হচ্ছে লজিক

  • ফিজিক্যাল

পূর্বানুমান ড্রয়িং করা অর্থাৎ সফটওয়্যারটি উপস্থাপনা কেমন হবে যেমন বাস্থবিক কেমন হবে তা আকাঁ আপনার বিভিন্ন প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখে ছবি আকেন কিন্তু তা কাল্পনিক

টিপসঃ উপরের সব তথ্যগুলো সফটওয়্যার ডেভেলপ করার আগে গবেষনা করতে হবে

৪।ব্যবস্থা গ্রহন

  • কোডিং

এই পর্যায়ে আপনি যে সফটওয়্যারটি ডেভেলপ করতে  তার প্রয়োজনিয় কোড টাইপ করতে হবে আর এটি আপনাকে শিখতে হবে । (Code, Form to form link, ,page to page link)

ওরাকল এর কাজ শিখতে হলে আপনাকে ২টা কোর্স করতে হবে

১। Oracle Form Developer

২। Oracle DBA (DATABASE ADMINISTRATOR)

  • ডকুমেনশন টেষ্টিং

এই পর্যায়ে প্রোগ্রাম কোড করার পর তা রান করে দেখতে হবে এবং যদি কোন ভূল থাকে তা সংশোধন করতে হবে

৫।মেইটেন্যান্স

এটি সবচেয়ে গুরুত্তপূর্ণ কাজ ,একটা প্রজেক্ট তৈরি করা সহজ কিন্তু তা রক্ষণাবেক্ষন করা খুবই কষ্টকর তাই আপনাকে বিভিন্ন সমস্য সমাধানের উপায় সম্পর্কে পূর্ণাংগ ধারণা থাকা আবশ্যক

লক্ষনিয় সকল প্রোগ্রামিং প্রজেক্ট এই নিয়মে হয়ে থাকে শুধুযে ওরাকল তা নয়

আপনাদের কেমন বুঝাতে পেরেছি জানি না তবে আমি চেষ্টা করেছি যতটুকু সম্ভব সহজ করতে যদি আপনারা কোথাও বুঝতে সমস্যা হয় তাহলে আমার সাথে যোগাযোগ করবেন

এক নজরে দেখে আসুন ওরাকর কাজ শিখতে হলে আপনাকে কি কি প্রোগ্রাম শিখতে হবে

আপনি যদি ওরাকল এর কাজ শিখতে চান তাহলে এই  প্রোগ্রাম গুলো শিখতে হবে

১। ওরাকল সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাকে বলে (Oracle Basic)

Oracle basic

http://www.youtube.com/results?search_query=oracle

২।  ডেটা Create,delete,alter,modify  জন্য SQL*PLUS এটি খুব ভাল ভাবে শিখতে হবে
SQL Zoo

W3schools
Bangla webcoachbd

ওরাকল সফটওয়্যার এখান থেকে Registration  করে ডাউনলোড করে নিন (ORACLE 11G)
Download Link oracle11g

SQL গুলো ইউজ করার জন্য ওরাকল ডেভেলপার এর কাজ হল Form Design করা এবং Report Create করা প্রিন্ট করা এর জন্য আপনাকে Developer  এর কাজ শিখতে হবে আর ডেভেলপার শিখতে হলে আপনাকে নিম্ন প্রোগ্রাম শিখতে হবে

    ORACLE DEVELOPER DOWNLOAD LINK

  •  FORM BUILDER : বিভিন্ন ধরনের ফর্ম তৈরি করার জন্য

  • REPORT BUILDER : যা দিয়ে খুব সুন্দর সুন্দর রির্পোট পাওয়া যায় অর্থাৎ যা কাগজে আমার প্রিন্ট করে যে রির্পোট পাই
  • Grapics builder : ডেটাবেজের ডেটা সমুহ গ্রাফিক্স এ উপস্থাপন করার জন্য গ্রাফিক্স বিল্ডার ব্যবহার করা হয়
  • Procedure Builder : প্রোগ্রাম ইউনিট নিয়ে কাজ করে যেমন:ফাংশন,ইত্যাদি
  • Translation Builder : বিভিন্ন এ্যাপ্লিকেশন মধ্যে সার্পোটেড ল্যাংগুয়েজ ব্যবহার করা হয়
  • Schema  Builder : ডেটা অবজেক্ট>টেবিল ,ভিউ,কটি ইত্যাদি
  • Query Builder : ডেটাবেজ থেকে ডেটা রিট্রিভ করার জন্য ব্যবহার করা হয়

ফর্ম এবং রির্পোট ইত্যাদি Process কাজ করার জন্য ওরাকল নিজস্ব ল্যাংগুয়েজ আছে তা হল (PL/SQL)

Pl/sql Tutorial

বিভিন্ন বাটন(SAVE,VIEW,ADD,CLEAR,DELETE,EXIT)কাজ করার জন্য ট্রিগার   (Trigger) ব্যবহার করা হয়

ওরাকল সফটওয়্যার কেমন হতে পারে নিচের ভিডিওটা দেখে নিন এটি নেট ঘাঁটতে ঘাঁটতে পেয়েছি

সাথে থাকুন ইনশাআল্লাহ আপনাদের ওরাকল এর কাজ যতটুকু সম্ভব হয় শিখানোর আর এই পোষ্টটি লিখতে লাগছে ২দিন আর গবেষণা করতে লাগছে প্রায় ১মাস আসা করি কিছুটা হলেও শিখেছেন আমি আপনাদের কাছে দোয় চাই মা বাবা এবং পরিবারের জন্য
আজ এখানেই পরবর্তি টিউন এর জন্য অপেক্ষায় থাকুন  SQL*PLUS

ফেজবুক  :: FACEBOOK

যোগ দিন আমার ফেজবুক পেজ এ >>ORACLE DBA<<<
ইমেইল  ::   Rahimuddin2012@gmail.com

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করা হয়েছে